২ হাজার টাকার সুদ ১ লক্ষ টাকা ! সুদ খোড়ের হুমকিতে আতংকে দিনমজুর পরিবার

মানিকগঞ্জ : সুদ ব্যবসায়ী মানু

মানিকগঞ্জ : মানিকগঞ্জ পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা শহিদুল ইসলাম । কখনো রিক্সা কখনো হ্যালোবাইক আবার কখনো ইটভাটায় শ্রমিকের কাজ করে সংসার চালান তিনি । সংসারের অভাবের কারনে ১৭ মাস আগে স্থানীয় সুদ ব্যবসায়ী মানুর কাছ থেকে হাজারে দৈনিক ১০ টাকা হারে সুদে ২হাজার টাকা নেন শহিদুল । কিছুদিন ঠিকভাবে সুদের টাকা দেওয়ার পর করোনা আর বন্যা পরিস্থিতিতে ৭ মাস সুদ দিতে না পারায় হঠাৎ মানু তার কাছে ২ হাজার টাকার সুদ ১ লক্ষ ৪ হাজার টাকা দাবী করেন । টাকা আদায়ে  ফোনে এবং বাড়িতে গিয়ে  নিয়মিত দিচ্ছে নানা প্রকার হুমকি ।

মানু বকজুরি এলাকার ওমর আলীর ছেলে এবং শহিদুল ইসলাম একই এলাকার আসমত আলীর ছেলে ।

শহিদুল ইসলাম জানান, অভাবের কারণে ১৭ মাস আগে মানুর কাছে দৈনিক হাজারে ১০টাকা সুদে ২ হাজার টাকা নেই। কিছুদিন ঠিকভাবে সুদের টাকা দেওয়ার পর করোনা আর বন্যা পরিস্থিতিতে ৭ মাস দিতে পারিনি। হঠাৎ মানু তার কাছে ২ হাজার টাকার সুদ ১ লক্ষ ৪ হাজার টাকা দাবী করেন । আমাকে নানাভাবে হুমকি দিতে থাকে। মানু ডেঞ্জারাস লোক কখন যে আমাকে এবং আমার পরিবারের কাউকে মেরে ফেলবে তা নিয়ে আতংকে আছি ।

তিনি আরো জানান, আমি উপায়অন্তর না পেয়ে বিষয়টি মিমাংশার জন্য আমার আত্নীয় বাবু মিয়া এবং কার্লিচ নামে দুইজন মুরুব্বি পাঠাই মানুর কাছে । কিন্তু তাদের কোন রকম পাত্তা না দিয়ে তাদের অপমান করে ।

বাবু মিয়া ও কার্লিচ জানান, বিএনপি নেতা নামধারী এবং এলাকার ডন পরিচয়দানকারী মানুর ঋণের জালে পড়ে নিঃস্ব মানিকগঞ্জ পৌরসভা এলাকার অনেক পরিবার। সুদের টাকা পরিশোধ করতে না পারলে চক্রবৃদ্ধি হারে তা বাড়ে। সেই টাকা দিতে না পারলে ঘরের আসবাবপত্র, গরু, ছাগল ও ভ্যান যা পায় নিয়ে যায়। সময়মত না পরিশোধ করলে তার টর্চার সেলে নিয়ে করা হয় নির্যাতন ।

বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসন জানার পরও কোনও ব্যবস্থা না নেওয়ায় তাদের দৌরাত্ম বেড়েছে বলেও জানান স্থানীয় শুশীল সমাজ ।

এসব অভিযোগ স্বীকার করে মানু দাপটের সাথে বলেন, আমি এলাকার ডন । আমি যেভাবে খুশি সেভাবে সুদ ব্যবসা করি । আমি কারো পরোয়া করি না । আমার নামে ৫টি মামলা রয়েছে । দরকার হয় আরো হবে । আমার কাজে কেউ বাধা দিলে বন্দুকের নল ঠেকিয়ে গুলি করে দেব । এতে যা হয় হবে ।

মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেলে দ্রæত তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments
ভাগ