মানিকগঞ্জে দেওয়ানী মামলা চলমান থাকাবস্থায় আদালতের নির্দেশ না মেনে পাকাঁ দেয়াল নির্মান করে জমি দখলের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার:
মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার ভাড়ারিয়া এলাকায় মানিকগঞ্জ সদর সহকারী জজ আদালতে দেওয়ায়ানী ২৮৩/২১ নং মামলা চলমান থাকাবস্থায় আদালতের নির্দেশনা উপেক্ষা করে পাকাঁ দেয়াল নির্মান করে আ: মজিদের জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালী সফিউদ্দিন মাস্টার ও তার বোন ভাগিনাদের বিরুদ্ধে । আব্দুল মজিদ ভাড়ারিয়া এলাকার হযরত আলীর ছেলে এবং সফিউদ্দিন মাস্টার একই এলাকার আলীমুদ্দিনের ছেলে ।

আদালতের মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার ভাড়ারিয়া মৌজার আরএস ২৬৬৯ নং দাগে ১৬ডিং এবং ২১৮৫ নং দাগে ৮ ডিং ভূমি পৈত্রিক সূত্রে মালিক আ: মজিদ গং । আ: মজিদ গং এর ভোগদখলে থাকাবস্থায় স্থানীয় সফিউদ্দিন মাস্টার গং জোড় করে দখলের চেষ্টা করে । এর প্রেক্ষিতে আব্দুল মজিদ সফিউদ্দিন মাস্টার গংদের বিরুদ্ধে দেওয়ানী আদালতে একটি দেওয়ানী মোকদ্দমা দায়ের করেন । উক্ত মোকদ্দমায় বাদী পক্ষ গত ১৭/৮/২০২২ তারিখে বিবাদীদের বিরুদ্ধে একটি অস্থায়ী নিষেদাজ্ঞার আবেদন করলে আদালত আবেদনটি আমলে নিয়ে সফিউদ্দিন মাস্টার গংদের বিরুদ্ধে কারন দর্শানো নোটিশ জারি করেন । কারন দর্শানো নোটিশ প্রাপ্তির পর কোন রকম জবাব দাখিল না করে তড়িঘড়ি করে ৩০/৩৫ জন লেবার নিয়ে স্থানীয় প্রভাবশালীদের সাথে নিয়ে পাকাঁ দেয়াল নির্মান করে ভমি দখল করে । ভূমিতে থাকা মূল্যবান গাছপালা কেটে নিয়ে যায় । এতে বাধাঁ দিলে আ: মজিদ গংদের উপর হামলা চালায় । এ ঘটনায় গত ৭ সেপ্টেম্বর মানিকগঞ্জ সদর থানায় আ: মজিদের ছেলে জামাল উদ্দিন বাদি হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন । এর পর সফিউদ্দিন মাস্টার পাল্টা থানায় একটি কাউন্টার মামলা করেন । বর্তমানে আ: মজিদ ও তার পরিবার আতংকে ও রিাপত্তাহীনতায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে ।

এ বিষয়ে মামলার বাদী আ: মজিদ জানান, সফিউদ্দিন মাস্টার এবং তার বোন ভাগিনারা এলাকার প্রভাবশালীদের নিয়ে আমার পৈত্রিক সূত্রে মালিকানা সম্পত্তিতে পাকা দেয়াল নির্মান করে দখল করে নিচ্ছেন । তারা আদালত ও প্রশাসনকেও মানছেন না ।

এ বিষয়ে অভিযোক্ত সফিউদ্দিন মাস্টারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেস্টা করলেও তিনি এই প্রতিবেদকের ফোন রিসিভ করেননি ।

এ বিষয়ে স্থানীয় ভাড়ারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আ: জলিল বলেন, আদালতে নিষেধাজ্ঞা মামলা আছে তা আমার জানা নেই । তবে উভয়পক্ষকে কাগজপত্র নিয়ে পরিষদে আসতে বলেছি । যদি আমার কাছে আসে তবে স্থানীয়ভাবে বিষয়টি সমাধান করার চেষ্টা করবো ।

Facebook Comments Box
ভাগ